সন্ধ্যার সাথে পাল্লা দিয়ে রাজধানী ঢাকার রাজত্বের আসনে বসেন যৌনকর্মীরা

0
992
রাজধানীর সন্ধ্যা রাতের গল্প হয়তো অনেকেই জানেন বা শুনেছেন বন্ধু কিংবা বান্ধবী অথবা মিডিয়ার মাধ্যমে। সন্ধ্যা হলেই ঢাকা শহরের চিত্র পাল্টে যায়। সন্ধ্যার সাথে পাল্লা দিয়ে রাজধানী ঢাকার রাজত্বের আসনে বসেন যৌনকর্মীরা।
রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় সন্ধ্যা হলেই তাদেরকে দেখা যায়। এর মধ্যে কয়েকটি উল্লেখযোগ্য স্থানে যৌনকর্মীরা অবস্থান করেন। তার মধ্যে হাইকোর্টের বিপরীত পাশে ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউটের কাছের ফুটওভার ব্রিজটি অন্যতম।
সন্ধ্যা হলেই যৌনকর্মীদের দখলে থাকে এটি। রাতের গভীরতার সাথে সাথে ফুটওভার ব্রিজটি যৌনকর্মীদের লীলাভূমিতে পরিণত হয়।
ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউটের পাশে অবস্থান করে দেখা যায়, সন্ধ্যা ৭টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত ওভার ব্রিজে বিভিন্ন বয়সের যৌনকর্মীকে ভিড় করতে দেখা গেছে। তাদের বয়স ২০ থেকে ২৮ বছর হবে। প্রতিদিনই এখানে তাদের জমাট হতে দেখা যায় বলে জানান শরবত বিক্রেতা আবুল হোসেন।
তিনি আরো বলেন, ওভার ব্রিজের উপরে সন্ধ্যার পর মেয়ে-মহিলারা একত্রিত হন। তবে খোলামেলা জায়গায় কিছু না করলেও সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের ভিতরে অনেক কিছুই হয়। রাতের আঁধারে পুলিশের সামনেই এরকম ঘটনা ঘটে থাকে।
রাত প্রায় সাড়ে আটটার দিকে রমনা পার্কের সাইটে ওভার ব্রিজের উর দেখা যায় কয়েকজন মহিলা একত্রে দাঁড়িয়ে আছেন। জোড়া জোড়া পাখির মত সারিতে দাঁড়ানো। দূর থেকে এমন দৃশ্য দেখে পরবর্তী অবস্থা জানার আগ্রহে দূর থেকে তাদের উপর চোখ রাখেন বিডি২৪লাইভ টিম।
কিছুক্ষণ পর কয়েকজন পুরুষ ওভার ব্রিজে উঠেন। প্রায় ১০ মিনিট পর তাদেরকে ব্রিজের অপর পাশ দিয়ে নামতে দেখা যায়।
এমন দৃশ্য সম্পর্কে চা দোকানদার (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) তিনি বলেন, ‘এটাই তো স্বাভাবিক বিষয়, তার চেয়ে আরো বড় অনেক কিছুই এখানে ঘটে থাকে। কারো কিছু করার নাই।’
অনুসন্ধান করে জানা যায়, প্রতিদিন এখানে ১০ থেকে ২০ জন যৌনকর্মী অবস্থান করেন। তবে এখান থেকে দামদর ঠিক করে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়।
 এখানে শুধু নরমাল কিছু করে থাকে। তার জন্য ২০ থেকে ৫০টাকা নিয়ে থাকেন তারা। দূরে কোথাও নিয়ে গেলে তখন তাদের দাম বেড়ে যায়।
নাম প্রকাশ্যে অনিচ্ছুক এক দালাল বলেন, কাজ কাম পায় না তাই এটা করে দিনযাপন করেন। পুলিশ তো তাদেরই একটা অংশ।

মন্তব্য করুন