সাংবাদিকেরা এখন ‘কপি-পেস্ট’ করছে- সেতুমন্ত্রী

0
876

 

বেশির ভাগ সাংবাদিকেরা এখন ‘কপি-পেস্ট’ করছে অভিযোগ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সাংবাদিকদের মধ্যে যা দেখব, তা লিখব এটা কি আছে? একজন রিপোর্ট লেখেন অন্যদের কাছে শুনে শুনে, এখন দেখা যাচ্ছে, একজন গেছেন অন্য কেউ যাননি। অন্যের কাছ থেকে নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করছেন। পরের দিন দেখা যায় একই প্রতিবেদন সব পত্রিকায়।
সোমবার বিকেলে রাজধানীর প্রেসক্লাবে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) আয়োজিত ‘সাংবাদিকদের আনন্দ সম্মিলন’ অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সাংবাদিকেরা এখন এই পেশাটাকে যে কী অবস্থায় নিয়ে গেছেন। আমার এলাকার আশপাশের এলাকার এক সাংবাদিক আছে, আমি জানি না সে এক লাইন শুদ্ধ ভাষায় বাংলা লিখতে পারে কি না। সে একটি কাগজের সাংবাদিক। পেশাটাকে যে কী অবস্থায় আপনারা নিয়ে গেছেন! ব্যাঙের ছাতার মতো মিডিয়া সৃষ্টি হয়েছে।
তথ্যমন্ত্রীকে সাংবাদিকদের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এখন সাংবাদিকেরা যা পান, তাতে চলে না। সাংবাদিকেরা বাসায় বসে পড়াশোনা করার জন্য তো একটা মুড লাগে। তাঁদের ইন্সপাইরেশন তো দরকার। আমার পেটে নেই ভাত, সংসারের ছেলেমেয়েদের খরচ দিতে পারছি না, বাড়িভাড়া দিতে পারছি না। এ রকম করে কীভাবে তিনি ভালো সাংবাদিকতা করবেন?’
সাংবাদিকদের সুবিধাগুলো দেখতে তথ্যমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনুর উদ্দেশে সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, সাংবাদিকদের বিষয়গুলো দেখবেন, সাংবাদিকদের সুবিধাগুলো দেখবেন। একটি মানবিক বিষয় আছে, এ মানবিক দৃষ্টিকোণটাও উপেক্ষিত নয়। কেন তাঁরা সংঘাতের দিকে যাবেন। সাংবাদিকেরা তো ভিন্ন কোনো গ্রহের বাসিন্দা নন। তাঁদের সঙ্গে বসে আলোচনা করে সমাধান করতে হবে। সাংবাদিকদের ওয়েজ বোর্ডের বিষয়টির যুক্তিসংগত সমাধান করে দিন।
এসময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিএফইউজের সভাপতি মনজুরুল আহসান বুলবুলের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, বিএসএমএমইউয়ের উপাচার্য কামরুল হাসান খান, বিএফইউজের সাবেক সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, সমকাল পত্রিকার সম্পাদক গোলাম সারওয়ার, বিএফইউজের মহাসচিব ওমর ফারুক চৌধুরী, ডিইউজের সভাপতি শাবান মাহমুদ, সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী প্রমুখ।
এর আগে গত শনিবার (১১ নভেম্বর) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ (সদর ও বিজয়নগর) আসনের সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মুক্তাদির চৌধুরী একটি টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠানে বলেন, সাংবাদিকরা অনেকে ‘জার্নালিষ্ট’ বানান লিখতে পারেন না। অনেক সাংবাদিক আছে তাদের যদি বলা হয় জার্নালিস্ট লিখে আনেন তারা লিখতে পারেন না। আই অ্যাম শিউর। তারপরও তারা নিজেদেরকে সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে বেড়াচ্ছেন।
এসময় আওয়ামী লীগের এ সংসদ সদস্য সাংবাদিকদের অশিক্ষিত, অদক্ষ্য ও দুর্নীতিবাজ বলে আখ্যায়িত করেন।

মন্তব্য করুন