শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে এক ভ্যানচালক গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের

0
690
ছবি: ক্রাইম নিউজ
ছবি: ক্রাইম নিউজ

বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় স্কুলছাত্রীর ঘরে ঢুকে শ্লীলতাহানির চেষ্টার অভিযোগে এক ভ্যানচালক গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। এক পর্যায়ে ওই ব্যক্তির গলায় জুতার মালা পরিয়ে গ্রাম ঘুরিয়েছে মাতব্বররা।

বুধবার উপজেলার গাড়ীদহ ইউনিয়নের মহিপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। অভিযুক্ত ওই ব্যক্তির নাম তোজাম হোসেন (৪৫) একইগ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে ও পেশায় ভ্যানচালক।

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার রাতে তোজাম হোসেন মহিপুর গ্রামের রবি মন্ডলের সপ্তম শ্রেণিতে পড়ুয়া মেয়ের ঘরে ঢুকে তাকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়। এসময় ওই স্কুলছাত্রীর চিৎকারে তার বাবা-মা ও প্রতিবেশীরা তোজামকে ঘরের ভেতর হাতেনাতে আটক করে।

এই খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে গ্রামের লোকজন অভিযুক্ত তোজামকে সারারাত গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করে। পরদিন (বুধবার) সকালে গ্রামের মাতব্বররা তোজামকে গণপিটুনি দিয়ে গলায় জুতার মালা গলায় পড়িয়ে গ্রাম ঘুরাতে থাকে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ওই ব্যক্তিকে উদ্ধার করে।

বগুড়ার শেরপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আতোয়ার রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, অভিযুক্তকে ব্যক্তিকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়া হয়। সেখানে তাকে থানাহাজতে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানা তিনি।

এদিকে ভুক্তভোগী স্কুলছাত্রীর স্বজনরা অভিযোগ করেন, অভিযুক্ত তোজাম এই স্কুলছাত্রীকে বিভিন্ন সময় কু-প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। কিন্তু এতে সাড়া না পেয়ে, মঙ্গলবার রাতে ঘরের টিন কেটে ভেতরে প্রবেশ করে জোরপূর্বক শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালায়।

মন্তব্য করুন