অর্ধলাখ ঘুষের টাকাসহ ওয়াকফ কর্মকর্তা গ্রেফতার

0
769

অর্ধলাখ টাকা ঘুষ গ্রহণকালে বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী প্রশাসক মো. মোতাহার হোসেন খানকে গ্রেফতার করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) কর্মকর্তারা।

আজ (রোববার) দুপুর সাড়ে ১২টায় দুুদক ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক নাসিম আনোয়ারের নেতৃত্বে একটি দল রাজধানীর নিউ ইস্কাটন রোডের কার্যালয়ে মোতাহার হোসেন খানকে হাতেনাতে গ্রেফতার করে।

মো. ফারুক হোসেন নামের এক ব্যক্তির বরাত দিয়ে দুদকের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, ঢাকার কেরানীগঞ্জ উপজেলার বাঘৈর জামে মসজিদের নামে মৌজা বাঘৈর এর বিভিন্ন দাগে মোট ১.২৫ একর সম্পত্তি রয়েছে। বাঘৈর জামে মসজিদ উন্নয়নের জন্য মসজিদের নামে ওয়াকফকৃত সম্পত্তি থেকে এস এ খতিয়ান নং২১৫০, আর এস খতিয়ান নং৪৩২, এস এ দাগ নং১৩৭০, আর এস দাগ নং৯৮৭ এর তফসিলভুক্ত ০.৯৪ একর সম্পত্তি বিক্রয়ের অনুমতি প্রদানের জন্য জনৈক মোতওয়াল্লি হাজি আবুল বাশার বেপারি ২০১৩ সালের ১ আগস্ট বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসক বরাবর আবেদন করেন।

পরবর্তীতে বিষয়টি পরিচালনা করার জন্য মো. ফারুক হোসেনকে মোতওয়াল্লি হাজী আবুল বাশার বেপারি কর্তৃক ক্ষমতা প্রদান করা হয়। মো. ফারুক হোসেন দুদক অভিযোগ কেন্দ্রের হটলাইনে (১০৬) অভিযোগ করে বলেন, বাংলাদেশ ওয়াকফ প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী প্রশাসক মো. মোতাহার হোসেন খানকে কাজটি করে দেয়ার জন্য তার কাছে পাঁচ লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেছেন।

এরই ধারাবাহিকতায় আজ ঘুষ প্রদানের কথা ছিল। বিষয়টি অবহিত হয়ে দুদক সব আইনানুগ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে একটি বিশেষ টিম গঠন করে। দুদক টিমের সদস্যরা আজ সকাল থেকেই ওয়াকফ কার্যালয়ের চারিদিকে ওঁৎপেতে থাকেন।

দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২টায় নিজ দফতরে বসে যখন মো. মোতাহার হোসেন খান যখন ঘুষ গ্রহণ করছিলেন ঠিক তখনই দুদক টিমের সদসরা তাকে ঘুষের টাকাসহ হাতে-নাতে গ্রেফতার করেন। এছাড়া তার পকেট ও আলমারি তল্লাশি করে আরও ৭৯ হাজার টাকা পাওয়া যায়। এ টাকার উৎস সম্পর্কে গ্রেফতারকৃত মোতাহার হোসেন কোনো জবাব দিতে পারেননি।

এ বিষয়ে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয়, ঢাকা-১ এর সহকারী উপসহকারী পরিচালক মো. নাজিম উদ্দীন বাদী হয়ে রমনা থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং৪ (৫ নভেম্বর)।

মন্তব্য করুন