নেত্রকোনা যৌতুকের জন্য গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যা

0
1879

নেত্রকোনার পূর্বধলায় যৌতুকের জন্য সুমি আক্তার (২৩) নামের এক গৃহবধূকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে তার স্বামীর বিরুদ্ধে।সোমবার (৪ ডিসেম্বর) উপজেলার হোগলা ইউনিয়নের কালিহর মাইজপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত সুমি আক্তার ময়মনসিংহের ফুলপুর উপজেলার কোকাইল গ্রামের নূরুল ইসলামের মেয়ে ও উপজেলার হোগলা ইউনিয়নের কালিহর মাইজপাড়া গ্রামের জুয়েল মিয়ার স্ত্রী।

নিহতের পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৩ বছর আগে সুমিকে জুয়েলের সাথে বিয়ে দেওয়া হয়। বিয়ের পর থেকে জুয়েল যৌতুকের জন্য তার স্ত্রীকে চাপ প্রয়োগ করত।

এতে তার স্ত্রী অস্বীকৃতি জানালে জুয়েল প্রায়ই তাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করত। এক পর্যায়ে সোমবার সকালে জুয়েল তার স্ত্রী সুমিকে বাবার বাড়ি থেকে একলক্ষ টাকা এনে দেওয়ার জন্য চাপ দেয়। সে অপারগতা প্রকাশ করলে তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে জুয়েল ও তার পরিবারের লোকজন সুমিকে পিটিয়ে হত্যা করে।

পূর্বধলা থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) অভিরঞ্জন দেব জানান, খবর পেয়ে সোমবার বিকেলে জুয়েলের বাড়ির উঠোন থেকে লাশ উদ্ধার করা হয়।নিহতের শরীরে বিশেষ কোনো আঘাতের চিহ্ন দৃশ্যমান না থাকলেও ঠোটে হালকা দাগ রয়েছে। তবে এটি হত্যা না আত্মহত্যা তা এ মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

এ ঘটনায় নিহতের ভাই শাহীন বাদী হয়ে জুয়েলসহ চার জনকে আসামী করে পূর্বধলা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। লাশ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করা হবে।

মন্তব্য করুন