সাবেক ছাত্রলীগ নেতারা চাই যুবলীগের আগামী নেতৃত্বে আরিফকে

0
240
যুবলীগ এক অহংকারের নাম, এক গৌরবের নাম। ‘এখন যৌবন যার যুদ্ধে যাবার তার শ্রেষ্ঠ সময়’ আর সেই শক্তি-সাহস ও প্রত্যয় নিয়ে এগিয়ে গিয়ে বঙ্গবন্ধুর নির্দেশনায় গঠিত হয়েছিল যুব সমাজের কর্ম-পাঠশালা, শাণিত আলোয় বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ।
 
করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আসায় সংগঠনকে শক্তিশালী করার মিশনে নেমেছে যুবলীগ। তৃণমূল যুবলীগকে ঢেলে সাজাতে সাংগঠনিক সফর শুরু করেছেন দায়িত্বশীল নেতারা। নতুন নেতৃত্ব সৃষ্টির লক্ষ্যে দীর্ঘদিন সম্মেলন না হওয়ায় কোন্দলে জর্জরিত শাখাগুলোকে প্রাধান্য দিয়ে কাজ করছেন তারা। কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দের চাপে সাম্প্রতিক সময় ময়মনসিংহে যুবলীগের কমিটি নিয়ে তৎপরতা শুরু হয়েছে।
 
তাহলে কারা আসছে আগামীতে যুবলীগের নেতৃত্বে? অনেকের মনেই ঘুরপাক খাচ্ছে প্রশ্নটি। আবার ডাকঢোল পিটিয়ে অনেকে বলছে বর্তমান কমিটি পুণাঙ্গ হবে। কেহ কেহ বলছে নতুন নেতৃত্বে আসার সম্ভাব্যনায় বেশি। ময়মনসিংহ সাবেক ছাত্রলীগ নেতারা মনে করেন নতুন নেতৃত্বে আসলে তাদের আস্তার যায়গা থেকে মনে প্রাণে সাবেক শহর ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফকে গুরুত্বপুর্ণ পদে দেখতে চাই ।
 
দেখাযায় আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফ পদ-পদবী ছাড়াই ময়মনসিংহে যুবলীগের ব্যানারে কেন্দ্র ঘোষিত বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে আসছে। মহানগর যুবলীগের বর্ধিত সভায় হাজার হাজার যুব-জনতার উপস্থিতি দেখে যুবলীগের ‘আইকন’ হিসেবে অভিহিত করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন অতিথিরা।
 
সাবেক ছাত্রলীগের নেতারা মনে করেন, আব্দুল্লাহ আল মামুন আরিফকে গুরুত্বপুর্ণ পদে দিলে ইতিবাচক ধারায় ফিরবে যুবলীগ। যুবলীগ তার হারানো ঐতিহ্য ও গৌরব ফিরে পাবে বলেও তারা আশা ব্যাক্ত করেন । মানবতার যুবলীগে পরিণত হওয়া সংগঠনটি আর্তমানবতায় মানুষের কল্যাণে সর্বদা নিয়োজিত থাকবে এবং মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সোচ্চার থাকবে ও যেকোন সংকটে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে আরিফ। সর্বোপরি ময়মনসিংহে যেকোন স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তি প্রতিহত করার মূল ভূমিকায় অবতীর্ণ থাকবে তিনি।

মন্তব্য করুন