সকাল সকাল ১৫টি স্বপ্নের মোবাইল প্রকৃত মালিকের কাছে ফিরিয়ে দিল ওসি শাহ্ কামাল আকন্দ

0
129
সাংবাদিক-পুলিশ-ছাত্রী-রাজমিস্ত্রী-অটোচালক মোবাইল ফিরে দিল পুলিশ
জাহিদুল ইসলাম জীবন: ময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ সকাল সকাল ১৫ টি মোবাইল উদ্ধার করে প্রকৃত মালিকদের কাছে মোবাইলটি ফিরিয়ে দিছে । দীর্ঘদিন পর হারানো মোবাইল ফিরে পেয়ে খুশি মোাবইল মালিকরা। এএসআই আমীর হামজা মাধ্যমে এই মোবাইল গুলো উদ্ধার হয়।
আজ ১০আগস্ট বুধবার সকালে কোতোয়ালি মডেল থানার ওসি শাহ্ কামাল আকন্দ প্রকৃত মোবাইল মালিকদের কাছে হস্তান্তর করেন।
রাজমিস্ত্রী হাসান মিয়া বলেন, আমি গরিব মানুষ। কিছু কিছু টাকা জমিয়ে খুব কষ্ট করে মোবাইল কিনছিলাম। তিনি ধরেই নিয়েছিলেন ফোনটি আর ফিরে পাবেন না। কিন্তু ৫ মাসেরও বেশি সময় পর ফোন উদ্ধার করতে পারায় পুলিশকে ধন্যবাদ জানান।
ছোয়া মণি বলেন,১ মাস আগে আমার মুঠোফোন হারিয়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পরে না পেয়ে আমরা থানায় সাধারণ ডায়েরি করেছিলাম। হঠাৎ করে গতকাল কল দিয়ে জানানো হয়েছে যে আমাদের ফোন পাওয়া গেছে। হারানো মুঠোফোন আজ হাতে পেলাম। পুলিশের এই তৎপরতায় আমরা খুব খুশি। এএসআই আমীর হামজা ধন্যবাদ জানাই।
ওসি শাহকামাল আকন্দ বলেন, বেশিরভাগ মোবাইল হারানো এবং চুরির ঘটনা থানায় রিপোর্ট হলে আমরা সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে উদ্ধারের চেষ্টা করি। হারানো বা চুরি হওয়া মোবাইলগুলো জেলার ভেতরে থাকলে উদ্ধার করা সহজ হয়। বাহিরের জেলা হলে বিষয়টি সময় সাপেক্ষ হয়ে যায়। অপরাধ দমন ও মানুষের সেবা দানের ক্ষেত্রে পুলিশের সক্ষমতা অনেক গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহারের মধ্য দিয়ে মুঠোফোন উদ্ধারসহ অপরাধীদের শনাক্তে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। কোতোয়ালী পুলিশের এ ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
এএসআই আমীর হামজা বলেন,পুলিশ কর্মকর্তারা নানা কাজে ব্যস্ত থাকেন। তারপরও আমরা পেশাদার। অভিযোগ পেলে হারানো বা খোয়া যাওয়া মোবাইল ফোন উদ্ধারে আন্তরিকতার সঙ্গে চেষ্টা করি। তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় অনেক মোবাইল ফোন উদ্ধার করে দিয়েছি।
এছাড়াও মোবাইল উদ্ধার করে ফিরিয়ে দিছে ফারুক, ছোয়া মণি(ছাত্রী),বিল্লাল মাকসুদুর, নাঈমুর,হাসান মিয়া(রাজমিস্ত্রী, কুদ্দুস,আরিফ(অটোচালক),আনোয়ারুল ইসলাম,হাসান মিয়া,সম্পা সরকার,নারী উদ্যোক্তা, ইসতিয়াক,মিজান, সেলিম,বদরুল, (সাংবাদিক)।তাদের চোখেমুখে আনন্দের ঝিলিক। নিজের চোখকেও যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। সত্যি সত্যিই হারিয়ে যাওয়া ফোনটি তার হাতে।

মন্তব্য করুন