ময়মনসিংহ মুক্ত দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

0
1095

স্টাফ রিপোটার : ময়মনসিংহ মুক্ত দিবস ও মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষে আজ ছোট বাজার মুক্তমঞ্চে সপ্তাহব্যাপী বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করা হয়েছে। আজ রবিবার বিকেল সাড়ে ৩ টায় ছোট বাজার মুক্তমঞ্চে প্রথম দিনের আলোচনা অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিচারণ করা হবে।

জেলা প্রশাসক মোঃ খলিলুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক, এতে বিশেষ অতিথি থাকবেন ডাঃ এম আমানুল্লাহ এমপি, পুলিশ সুপার সৈয়দ নূরুল ইসলাম পিপিএম,বিপিএম, জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি অ্যাডভোকেট জহিরুল হক খোকা ও জেলা নাগরিক আন্দোলনের সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান খান, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার আনোয়ার হোসেন।

অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, ১৯৭১ সনের এই দিনে পাকহানাদার বাহিনীর হাত থেকে মুক্তিবাহিনী ও ভারতীয় মিত্র বাহিনীর যৌথর নেতৃত্বে ময়মনসিংহ শত্রুমুক্ত হয়। এই দিনটি ময়মনসিংহবাসীর জন্য অত্যান্ত তাৎপর্যময় ও অবিস্মরনীয়।

তারা অরো বলেন, স্বাধীনতাযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে দীর্ঘ ৯মাস ময়মনসিংহের বিভিন্ন স্থানে প্রায় শতাধিক খন্ড যুদ্ধ সংগঠিত হয়। ৯ডিসেম্বর সন্ধ্যার পর মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনী ব্রম্মপুত্র নদের অপর পাড় শম্ভুগঞ্জে এসে অবস্থান নেয় ও মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনী পাক সেনাদের উপর ঝাপিয়ে পড়ার চুড়ান্ত পরিকল্পনা গ্রহণ করে। পরদিন ১০ ডিসেম্বর ভোরে মুক্তিবাহিনী খবর পায় ব্রম্মপুত্র নদের উপর রেলওয়ে সেতুটি ডিনামাইট দিয়ে পাকবাহিনী ধবংস করে দিয়েছে। ভোরে পাকবাহিনী ময়মনসিংহ শহর থেকে পালিয়েছে। সকাল ১০টায় মুক্তিবাহিনী শ¤ভুগঞ্জ ফেরীঘাট পার হয়ে বীরবেশে ময়মনসিংহ শহরে প্রবেশ করে। ময়মনসিংহ সার্কিট হাউজ ময়দানে স্বাধীন দেশের পতাকা উড়ানো হয়। এইদিন একদিকে ছিল বিজয়ের অনাবিল আনন্দ অপর দিকে ছেলে হারা মা, ভাই হারা বোন, স্বামী হারা স্ত্রীর ক্রন্দন। তবুও সবকিছুর মাঝে বিজয়ের আনন্দ উদ্বেলিত করে ছিল মুক্তিকামী মানুষদের।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি এড.এবিএম নুরুজ্জামান খোকন,আওয়ামীলীগ নেতা হুমায়ুন কবির হিমেল, জেলা ছাত্রলীগ নেতা তানভীর যোবায়ের ইসলাম তারিন, রাজীব আহম্মেদ রাজু, রেদুয়ান অহম্মেদ, আরাফাত হোসেন নাঈম, ফাহিম পৃথুল সরকার, লিটন বর্মন প্রমুখ।

মন্তব্য করুন