ময়মনসিংহ ঈশ্বরগঞ্জে ফুফাতো ভাইদের আঘাতে মামা গুরুত্বর আহত

0
534

স্টাফ রিপোটার : ময়মনসিংহ ঈশ্বরগঞ্জে ফুফাতো ভাইয়ের আঘাতে মামা ও মামাতো ভাই গুরুত্বও আহত হয়েছে। আহত ব্যাক্তিরা হলেন, মো: দুলাল মিয়া(৩৫), মো মঞ্জু মিয়া(২৬)।

জানাযায়, গত ৩১ আগস্ট রোজ সোমবার সকালে ময়মনসিংহ ঈশ্বরগঞ্জ মাইজবাগ দত্ত গ্রাম আব্দুস সালাম বাড়িতে বড় বোন রাজিয়া খাতুন স্বামীর বাড়ি থেকে বেড়াতে আসেন। রাজিয়া খাতুনের চাচতো ভাইয়ের পুত্র বধু শরিফা আক্তারের সাথে র্পুব শত্রুতার জের ধরে ঝগড়া হয়। রাজিয়া খাতুন ঝগড়ার সময় খালি বাড়ি পেয়ে শরিফা খাতুনকে মারধর করে। বাড়িতে থাকা মুরব্বিরা এসে ঝগড়া মিমাংসা করে। রাজিয়া খাতুন যখন ঝগড়া করে স্বামীর বাড়িতে চলে যায় তখন শরিফাকে হুমকি দিয়ে যায় তরা কিভাবে এই বাড়িতে বসবাস করিস আমি তা দেখে নিব? রাজিয়া খাতুনে স্বামীর বাড়ি নিকটে থাকায় স্বামীকে সব কিছু বললে স্বামী মো: মছরব আলী ও তার ছেলে নাঈম মিয়া আব্দুস সালাম বাড়িতে এসে হুমকি দিয়ে তদের বাড়ির কারো মাথা থাকবেনা। আসামী মছরব আলী তার ছেলেদের ফোন দিয়ে ঢাকা থেকে বাড়িতে নিয়ে আসে ঝগড়া করার উদ্দেশ্যে।
পরর্বতীতে ঐদিন আনুমানিক সন্ধা ৬.৩০ সময় শরিফা স্বামী মো: মঞ্জু মিয়া ও চাচা শশুড় মো: দুলাল মিয়া বাজার থেকে আসার পথে তাদের গতিরোধ করে উৎপেতে থাকা রাজিয়া খাতুনের স্বামী মছরব আলী তার ছেলেরো সেলিম, শাকিল, শামিম, আল-আমিন, তাদের হাতে থাকা রামদা, ছুড়ি, লোহার রড, দিয়ে এলোপাথারী কুপিয়ে রক্তাত জখম করে মাটিতে ফেলে চলে যায়। পরর্বর্তীতে আশে পাশে লোকজন দেখে তাদের দ্রæত ঈশ্বরগঞ্জ হাসপাতাল নিয়ে যায়। অবস্থা গুরুত্বর দেখে তাদের ২ জনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থান্তর করে। মমেক হাসপাতালে কর্তব্যরত ৮নং ওয়ার্ডের চিকিৎসক জানান মাথায় গুরুতর জখম রয়েছে তাদের।

মঞ্জু মিয়ার চাচাতো ভাই আরিফুল ইসলাম জানান, আমার ভাইকে খুন করার উদ্দ্যেশে এলোপাথারী কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীদল। এ বিষয়ে মঞ্জু মিয়ার বড় ভাই বাদী হয়ে তাদের স্বামী-স্ত্রী ও ছেলেসহ ৬ জনের নামে থানার মামলা দায়ের করেন। ঈশ্বরগঞ্জ থানার মামলা নং-০২তাং ২/৯/২০২০।

এ বিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানার তদন্ত ওসি শাকের আহম্মেদ জানান, এ বিষয়ে থানায় মামলা রুজু হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিজান চলছে।

মন্তব্য করুন