ময়মনসিংহে ডিবি’র অভিযানে ভিয়েতনামে মানবপাচারকারী ওসমানী গ্রেফতার

0
353
ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অভিযানে ভিয়েতনামে মানবপাচারকারী কাজী সালেহ আহাম্মদ ওসমানী (মাসা) গ্রেফতার হয়েছে। তার বাড়ি ফুলপুরের তিতপুর গ্রামে। শনিবার ডিবির একটি চৌকুস টিম তাকে ডিবি পুলিশ গ্রেফতার করে।
ডিবির ওসি শাহ কামাল আকন্দ জানান, দালাল চক্রের মাধ্যমে ৪ বাংলাদেশী ভিয়েতনাম পাড়ি জমিয়ে ৫ মাস যাবৎ মানবেতর জীবন-যাপন করছে। উচ্চ বেতনের চাকুরি দেওয়ার প্রলোভনে ফুলপুরের মোকছেদুল ইসলাম, আকরাম হোসাইন, মোরসালিন মিয়া ও এরশাদ আলীকে স্থানীয় এক দালাল তাদের প্রত্যেকের কাছ থেকে সাড়ে তিন লাখ টাকা এবং ৩ লাখ ৭০ হাজার টাকাসহ মোট ১৪ লাখ ৪০ হাজার টাকার বিনিময়ে ভিয়েতনাম পাঠায়। বর্তমানে ঐ চারজন ভিয়েতনামে নির্যাতনের স্বীকার হচ্ছে এবং মানবতর জীবন যাপন করছে মর্মে বাংলাদেশ পুলিশের ফেইসবুক পেইজে একটি পোষ্ট করে। ঐ ফেইসবুক পোষ্টটি পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স গুরুত্ব বিবেচনা করে ময়মনসিংহের পুলিশ সুপারকে তথ্য প্রদান করেন।
ওসি ডিবি আরো বলেন, দায়িত্বশীল ও মানবিক পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান বিষয়টি গুরুত্বের সাথে বিবেচনায় নিয়ে প্রাথমিকভাবে তদন্ত করে দালাল চক্রকে সনাক্ত এবং তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থ্ গ্রহণের জন্য জেলা গোয়েন্দা পুলিশ ডিবিকে নির্দেশ প্রদান করেন।
ওসি শাহ কামাল আকন্দ পুলিশ সুপারের জরুরি আদেশ পেয়ে, তিনি(ওসি শাহ কামাল আকন্দ) পরিকল্পনা করে চৌকুস টিম নিয়ে সরেজমিনে তদন্ত করে দালালচক্রকে সনাক্ত করে। পরে শনিবার দালাল চক্রের অন্যতম হোতা কাজী সালেহ আহাম্মদ ওসমানী (মাসা) (৩৬) কে গ্রেফতার করে। সে ফুলপুরের তিতপুর গ্রামের কাজী শিব্বির আহম্মেদের ছেলে বলে পুলিশ জানায়। ওসি আরো জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত দালাল পুলিশী জিজ্ঞাসাবাদে মানবপাচারের ঘটনার সত্যতা স্বিকার করেছে । এই ঘটনায় পাচারকৃতদের আত্বীয় ইউসুফ আলী বাদি হয়প ফুলপুর থানার মামলা নং-২০, তারিখ-২৭/০৬/২০২০, ধারা-মানব পাচার প্রতিরোধ ও দমন আইন ২০১২ এর ৬(১)/৭/৮(২) দায়ের করেছে । গ্রেফতারকৃত মানবপাচারকারীকে রিমান্ড চেয়ে রবিবার আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন