ময়মনসিংহে ডিবি’র অভিযানে ডাকাত ও মাদক ব্যবসায়ীসহ গ্রেফতার সাত

0
286

ময়মনসিংহ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) পৃথক অভিযানে ডাকাত ও ৬ মাদক ব্যবসায়ীসহ সাতজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। রবিবার রাতে ডিবি পুলিশ বিভিন্ন স্থান থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে। এ সময় একশত ৮০ পিচ ইয়াবা ও ২০টি নেশাজাতীয় ইনজেকশন উদ্ধার করে পুলিশ।

ডিবির শাহ কামাল আকন্দ জানান, পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আহমার উজ্জামান ময়মনসিংহকে একটি নিরাপদ, শান্তিময় ও মাদকমুক্ত জেলা গড়তে কাজ করছেন। এ লে আইন শৃংখলা নিয়ন্ত্রণে রাখতে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন। পুলিশ সুপারের কঠোর নির্দেশনায় ডিবি পুলিশ মাদক উদ্ধার, মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার, চুরি-ছিনতাইরোধে নিয়মিত অভিযান পরিচালনা করে আসছে। এরই অংশ হিসাবে রবিবার ডিবির এসআই শামীম আল মামুন সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ ত্রিশালে অভিযান পরিচালনা করে ধানীখোলা থেকে ৮০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। তারা হলো, ধানীখোলা মধ্যভাটিপাড়া ডামেরমোড়ের নজরুল ইসলামের ছেলে ফারুক মিয়াও ফুলবাড়িয়ার আন্ধারিয়াপাড়ার আবু বকর সিদ্দিকের ছেলে মাশারফ হোসেন। এছাড়া এসআই সোহরাব আলী সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ সোমবার ত্রিশালে পৃথক অভিযান চালিয়ে সাইথকান্দা থেকে ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী ফরহাদ বিন মজিব ওরফে সুমনকে গ্রেফতার করে। সে সাউথকান্দা মধ্যপাড়ার মজিবুর রহমানের ছেলে। এসআই হাবিবুর রহমান গফরগাওয়ের পাগলা থানায় রবিবার রাতে অভিযান চালিয়ে কান্দিপাড়া থেকে ৫০ পিস ইয়াবা ট্যাবলেটসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে। তারা হলো, নয়াবাড়ির নুরু সরকারের ছেলে আবু সাইদ ও নুরাপাড়ার আঃ সালামের ছেলে আলমগীর।

এছাড়া এসআই আনোয়ার হোসেন সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ রবিবার সন্ধ্যায় বিভাগীয় নগরীর আকুয়া থেকে ২০ টি নেশাজাতীয় ইনজেকশনসহ মাদক ব্যবসায়ী মোঃ আজিমকে গ্রেফতার করে। সে আকুয়া জুবিলী কোয়ার্টারের বাদশা মিয়ার ছেলে। অপর অভিযানে এসআই শামীম আল মামুন সংগীয় অফিসার ফোর্সসহ সোমবার অভিযান পরিচালনা কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ থানার গোজাদিয়া থেকে ডাকাতি মামলার আসামী চিহিৃত ডাকাত হারুন অর রশিদকে গ্রেফতার করে। নে করিমগঞ্জের কামাল দেহুন্দা গ্রামের সাফের উদ্দিনের ছেলে। তার বিরুদ্ধে নান্দাইল মডেল থানার মামলা নং-২৬, তারিখ-১৮/০৩/২০২০ ইং ধারা-৩৯৫/৩৯৭ পেনাল কোড মামলা রয়েছে। মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে পৃথক মামলা হয়েছে। সোমবার তাদেরকে আদালতে পাঠিয়েছে পুলিশ।

মন্তব্য করুন