পঞ্চম শ্রেণি ছাত্র আঙ্গুল ছিঁড়ে’ ফেলেছেন এক শিক্ষক

0
1490

রাজধানীর মিরপুরের শ্রেণিকক্ষে কথা বলায় স্টিলের স্কেল দিয়ে আঘাত করে পঞ্চম শ্রেণি পড়ুয়া ছাত্র জুনায়েদ সিদ্দিকীর হাতের ‘আঙ্গুল ছিঁড়ে’ ফেলেছেন এক শিক্ষক। আহত শিশু শিক্ষার্থী জুনায়েদ মিরপুরের পল্লবী এলাকার কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে প্রাথমিক সমাপনী পরীক্ষায় (পিইসি) অংশ নিচ্ছে।

গত ১৮ নভেম্বর পিইসি পরীক্ষা শুরুর আগের দিন ওই স্কুলের ইংরেজির শিক্ষক আখতারুজ্জামান মাসুম এ ঘটনা ঘটান বলে অভিযোগ করেছেন শিশুটির মা শামসিয়া মোস্তফা।

তিনি বলেন, পিইসি পরীক্ষা শুরুর আগের দিন ইংরেজির শিক্ষক মাসুম স্যার শিক্ষার্থীদের বিশেষ ক্লাস নেয়ার উদ্দেশ্যে স্কুলে আসতে বলেন। ক্লাস চলাকালীন আমার ছেলে জুনায়েদ পাশের শিক্ষার্থীর সাথে কথা বলায় মাসুম তাকে ডেকে নিয়ে স্টিলের স্কেল দিয়ে হাতের তালুতে তিনবার আঘাত করেন। প্রচণ্ড আঘাতে জুনায়েদের বাম হাতের মধ্যমা প্রায় ছিঁড়ে যায়, সরু একটি শিরার কারণে পুরো আঙ্গুলটি সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়নি। পরে স্কুলের আয়ারা প্রথমে তাকে প্রিন্সিপালের কাছে ও পরে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

জুনায়েদের মা শামসিয়া মোস্তফা বলেন, চিকিত্সকরা জানিয়েছে, প্রচণ্ড আঘাতে ওর (জুনায়েদ) আঙ্গুলের মাংস ছিঁড়ে হাড় আলাদা হয়ে যায়। প্রাথমিকভাবে আঙ্গুল জোড়া দেয়া গেলেও পুরোপুরি সারতে অনেক সময় ও দীর্ঘমেয়াদী ফিজিওথেরাপি প্রয়োজন, যা বেশ খরচ সাপেক্ষ বলে জানিয়েছেন চিকিত্সকরা।

এদিকে মিরপুর কসমো স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাহমুদুল হক বলেন, আমরা ঘটনার সঙ্গে জড়িত শিক্ষককে বরখাস্ত করেছি। আর ক্ষতিপূরণ দেবার বিষয়টি আমাদের ভাবনায় নেই।

মন্তব্য করুন