কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় ভারপ্রাপ্ত ভিসিকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

0
881

ত্রিশাল প্রতিনিধি: গত কাল মঙ্গলবার ময়মনসিংহের ত্রিশালে প্রতিষ্ঠিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ডক্টর মোহিত উল আলম ও বর্তমানে ভিসির দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রেজারারের অনিয়ম দূর্নীতির তদন্ত দাবীতে উত্তপ্ত পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে শিক্ষক সমিতি ও বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের ব্যানারে পাল্টাপাল্টি বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধনে এ পরিস্থিতি ছিল দৃশ্যমান।

এ সময় শিক্ষক সমিতির পক্ষে আগামী সাত কার্য দিবসের মধ্যে উচ্চতর তদন্ত কমিটি গঠন করে বিশ্ববিদ্যালয়ে সংঘটিত সকল দূর্নীতি ও মদদদাতাদের বিচারের আওতায় আনতে আল্টিমেটাম দেয়া হয়। অন্যথায় কঠোর আন্দোলন কর্মসূচী ঘোষনা করা হবে বলেও হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি বিজয় কুমার কর্মকার। একই সাথে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সাবেক ভিসি প্রফেসর ডক্টর মোহিত উল আলম ও বর্তমানে ভিসির দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত ট্রেজারার প্রফেসর ডক্টর শামছুর রহমান’সহ সকল দূর্নীতির বিচারে দাবী জানান শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও কর্মচারীবৃন্দ।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি বিজয় কুমার কর্মকার, সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম, প্রফেসর ডক্টর মাহাবুব হোসেন, সাহাব উদ্দিন বাদল, শিক্ষক নেতা সোহেল রানা, আল জাবির, সংগঠনের সাবেক সভাপতি রুহুল আমীন, কর্মচারী নেতা মাসুদুল হাসান, আসাদুল হক, বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির সভাপতি লিজন, সাবেক সাধারন সম্পাদক আজিবুর রহমান প্রমূখ।

শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন, সাবেক ভিসি মোহিত উল আলমের বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগে আদালতে মামলা দায়ের হয়েছে। বর্তমান ট্রেজারারের বিরুদ্ধে দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। কিন্তু আমরা চাই সকল দূর্নীতিবাজদের বিচারের আওতায় এনে দ্রæত একজন সৎ ও যোগ্য ব্যক্তিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি পদে নিয়োগ দেয়া হোক।

কর্মচারী নেতা আসাদুল হক বলেন, সাবেক ভিসির দূর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলায় আমাকে মারধর করা হয়েছে। এভাবে কোন প্রতিষ্ঠান চলতে পারে না। তাই দূর্নীতিবাজ সহ যারা দূর্নীতিতে সহযোগীতা করেছে তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনা হোক।

শিক্ষক সমিতির সহ-সভাপতি বিজয় কুমার কর্মকার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল দূর্নীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে তদন্ত পূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মহামান্য রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী এবং ইউজিসির চেয়ারম্যান বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হবে। আশা করছি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ দ্রæত একজন সৎ ও যোগ্য ব্যক্তি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি পদে নিযুক্ত করবেন।

তবে শিক্ষক সমিতির বর্তমান সাধারন সম্পাদক শফিকুল ইসলাম বলেন, এর আগেও দূর্নীতির বিচার দাবীতে সমিতির পক্ষ থেকে মহামান্য রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, শিক্ষামন্ত্রী এবং ইউজিসির চেয়ারম্যান বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করা হয়েছিল

মন্তব্য করুন