ইজতেমা ময়দানে যোগ দিতে গিয়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে

0
1120

 

বিশ্ব ইজতেমাকে সামনে রেখে প্রতি বছরের মতো এবারও টঙ্গীতে শুরু হয়েছে ৫ দিন ব্যাপী জোড় ইজতেমা। আগামীকাল শুক্রবার বাদ ফজর আম বয়ানের মধ্যদিয়ে টঙ্গীর ঐতিহ্যবাহী কহর দরিয়া তুরাগ নদীর তীরে আগামী ২০১৮ সালের বিশ্ব ইজতেমা সফল করার উদ্দেশ্যে ৫ দিনব্যাপী বিশ্ব ইজতেমার প্রস্তুতি হিসেবে জোড় ইজতেমা শুরু হবে।

আগামী মঙ্গলবার আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে জোড় ইজতেমার সমাপ্তি ঘটবে। গুড়ি গুড়ি বৃষ্টির কারনে মুসল্লিরা প্রয়োজনীয় সামগ্রী নিয়ে দলে দলে ইজতেমা ময়দানে যোগ দিতে গিয়ে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে। এছাড়া ময়দানের আশ পাশের ফুটপাত হকারদের দখলে থাকায় মুসল্লিরা চলাচলে কষ্ট হচ্ছে। মুসল্লিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ময়দানের চারপাশে র‌্যাব, পুলিশসহ বিভিন্ন আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

কালেমা, নামাজ, ইমান-আমল, জান্নাত-জাহান্নাম ও তাবলিগের উদ্দেশ্য এবং মেহনত সম্পর্কে জোড় ইজতেমায় মুরুব্বিরা দাওয়াতের মাধ্যমে মৌলিক বিষয়াদির ওপর বয়ান করবেন। জোড় ইজতেমা শেষে ইসলামের দাওয়াত ঘরে ঘরে পৌঁছে দেয়ার জন্য জামাতবদ্ধ হয়ে দেশের বিভিন্ন জেলা উপজেলাসহ বিভিন্ন দেশে বেরিয়ে যাবেন চিল্লাধারী সাথীরা।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে টঙ্গী শহিদ আহসান উল্লাহ মাস্টার ষ্টেডিয়ামে গাজীপুর জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদের সভাপতিত্বে জোড় ইজতেমা ২০১৭ উপলক্ষ্যে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে টঙ্গী থানাসহ জেলায় কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের নিয়ে সভা অনুষ্ঠিত হয়।

এব্যাপারে বিশ্ব ইজতেমা ময়দানের মুরুব্বি মাওলানা মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, এবারও জোড় ইজতেমায় দেশের ৬৪টি জেলা থেকে আড়াই লাখ থেকে তিন লাখ মুসল্লিদের অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে। তবে বৈরি আবহাওয়ার জন্য মুসল্লিদের উপস্থিতি হ্রাস পেতে পারে বলেও তিনি জানান।

মন্তব্য করুন